BigNews: সরকারি অফিসে ৮ ঘণ্টার পরিবর্তে ডিউটি হবে ১২ ঘন্টা, শুরু কাজের সময়সীমা বাড়ানোর পরিকল্পনা

আগামী পয়লা জুলাই থেকে ভারতে দৈনিক কাজের সময়সীমা বাড়ানোর পরিকল্পনা করছে দেশটির সরকার । নতুন পরিকল্পনা অনুযায়ী, দৈনিক ৮ ঘণ্টা কাজের পরিবর্তে ডিউটি আওয়ার হতে পারে ১২ ঘন্টার। তবে মিলতে পারে সপ্তাহে ৩ দিন ছুটি। ভারতের কেন্দ্রীয় শ্রম আইন সংস্কারের অংশ হিসাবে দৈনিক কাজের এই সময়সীমা বাড়ানোর পরিকল্পনা চলছে।

সম্প্রতি এক বিবৃতির মাধ্যমে কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে এ তথ্য জানানো হয়েছে। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ইতোমধ্যে এই বিষয়ে কাজ শুরু করেছে সরকার। তবে পুরো বিষয়টা এখনও পরিকল্পনা পর্যায়ে আছে।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রণালয় সূত্রে বলা হচ্ছে, দেশের সব রাজ্য সরকার এখনও এই সংস্কার সংক্রান্ত রুল তৈরি করে উঠতে পারেনি। তাই সংশ্লিষ্ট শ্রমবিধি সংস্কার আইন সময়সাপেক্ষ বলে জানিয়েছে শ্রম মন্ত্রণালয়। তবে সব প্রক্রিয়া সঠিকভাবে সম্পন্ন করা হলে আগামী পয়লা জুলাই থেকেই কর্মীদের কাজের সময়ে বদল আসতে পারে বলেও জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়।

ভারতের সংবিধানের ২৯ টি কেন্দ্রীয় শ্রম আইন চারটি কোডে বিভক্ত। এগুলি হল মজুরি, সামাজিক নিরাপত্তা, ইন্ডাস্ট্রিয়াল রিলেশন, পেশাগত নিরাপত্তা ও স্বাস্থ্য। ভারতের স্বাধীনতার পরে পাস হওয়া এই শ্রম কোডের কিছুটা সংস্কার আনতে চলেছে সরকার। পরিকল্পনা অনুযায়ী, নতুন শ্রম আইনে দৈনিক ৯ থেকে ১২ ঘন্টার শিফট করতে হতে পারে কর্মচারীদের। আগে এ সময়সীমা ছিল ৮ ঘণ্টা। যদিও নতুন শ্রম আইন অনুযায়ী সপ্তাহে তিন দিন ছুটি পাবেন শ্রমিকরা। এছাড়া একটানা ৫ ঘন্টা কাজের পর মিলবে ৩০ মিনিটের বিরতিও।

এদিকে, নতুন নিয়ম অনুযায়ী কর্মীর বেতন বাবদ টিক হোম স্যালারি বা হাতে পাওয়া মাইনের পরিমাণ কমে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে কেন্দ্রীয় সরকার বলছে, পিএফ এর অনুদান বাবদ আয় বাড়ানোর সুযোগ রয়েছে। নতুন নিয়মে শ্রমিকদের সংশ্লিষ্ট রাজ্য সরকারের ইন্সুরেন্সের আওতায় নিয়ে আসা হবে। নারীদের নাইট শিফট করার ক্ষেত্রে থাকবে না কোনো রকম বিধি নিষেধ। তবে বাধ্যতামূলক্যভাবে নতুন নিয়ম পালনে কাউকে বাধ্য করবে না সরকার।

Related Posts

© 2024 Tech Informetix - WordPress Theme by WPEnjoy