সম্পর্কে কখনো কখনো স্বার্থপর হওয়াও দরকার, কেন জানেন?

আপনি সম্পর্ক করছেন! বেশ ভালো কথা। যদিও সম্পর্ক খুব কঠিন একটি ব্যাপার, তাই সম্পর্কটাকে টিকিয়ে রাখার জন্য বিভিন্ন পদ্ধতি অবলম্বন করতে হচ্ছে আপনাকে। কিন্তু আপনার সম্পর্ককে টিকিয়ে রাখার জন্য আপনার সঙ্গীকে সব ধরনের বিষয়ে প্রশ্রয় দিয়ে যাচ্ছেন। এতে আপনার সঙ্গী মাথায় চড়ে বসবে।

আপনি কেমন বোধ করছেন, কি চাইছেন, আপনি কোন কথায় কষ্ট পাচ্ছেন কি না এইসব ব্যপারে আপনার সঙ্গীর কোন যায় আসবে না। সুতরাং নিজের জীবনের সুখের কথা ভেবে প্রয়োজনে আপনি স্বার্থপর হোন। কিছু কিছু জায়গায় স্বার্থপরতা দেখান, দেখবেন সঙ্গী ঠিক হয়ে গেছে। এতে আপনিও সুখী হবেন।

যেসব জায়গায় স্বার্থপরতা দেখাবেন-

আগে নিজের কথা চিন্তা করুন :

আগে নিজের কথা চিন্তা করুন। নিজে যদি ভালো থাকেন তাহলে আপনার আশপাশের সবাই ভালো থাকবে। কিন্তু নিজে ভালো না থেকে যদি অন্যদের ভালো রাখার কথা চিন্তা করেন তাহলে এর বিপরীত হয়ে যাবে। তাই সবার আগে নিজেকে ভালোবাসুন। অন্যকে ভালো রাখার জন্য যে সময় নষ্ট করেন সেখান থেকে কিছুটা সময় বাঁচান নিজের জন্য। দেখবেন নিজে ভালো থাকলে সবাই ভালো থাকবে।

না বলতে শিখুন :

আপনার সঙ্গী যাই বলুক না কেন সব বিষয়ে হ্যাঁ বলা যাবে না। নিজের স্বার্থের জন্য অর্থাৎ নিজের জন্য যেটা ভালো হবে সেটাতে শুধু হ্যাঁ বলে দিবেন। অন্যথায় না বলাই শ্রেয়। মূল কথা আপনার সঙ্গীর সব কথাকেই প্রশ্রয় দিবেন না।

নিজের পছন্দকেই মূল্য দিন :

কে কী ভালোবাসে সেটা না ভেবে আপনি কোন জিনিসটা পছন্দ করেন সেটা ভাবুন। আপনার পছন্দের কাজগুলি করতে শুরু করুন। যদি কোনও জিনিস পছন্দ না হয় তাহলে সেটা না করুন। অন্যদের ভালো রাখার জন্য নিজের পছন্দকে যদি অবমূল্যায়ন করেন তাহলে আপনি নিজেই ঠকবেন।

নিজের পায়ে দাঁড়ান :

স্বামী বা বয়ফ্রেন্ড যতই টাকা রোজগার করুক না কেন, নিজে অর্থ উপার্জন করুন। অবশ্য যদি আপনার ইচ্ছে হয়। তবে সাবলম্বী হওয়া খুব প্রয়োজন। না হলে পরে অনেক পস্তাতে হবে।ts

Related Posts

© 2024 Tech Informetix - WordPress Theme by WPEnjoy