সঙ্গী দ্রুত রেগে যায়, সামলানোর ৬ উপায়

বিশ্বাস করুন আর না-ই করুন, কিছু মানুষ খুব সহজে রেগে যায়। মিনিটখানেক হয়তো সেই রাগ স্থায়ী হয়। তার পরে ধীরে ধীরে কয়েক মিনিটের মধ্যে মেজাজ শান্ত হয়ে যায়। শান্ত থাকলে সে হয়তো খুবই ভালো মানুষ আর আপনাকেও যথেষ্ট বোঝে। কিন্তু হুট করে রেগে যায় আর এ সময় কিছু ভুলও করে ফেলে। তো, এমন সঙ্গীকে সামলাবেন কীভাবে?

আপনার সঙ্গী যদি তেমন হয়, তাহলে আপনি কীভাবে আছেন, তা আমরা বুঝতে পারছি। এমন অলৌকিক কিছু নেই যে হুট করে আপনার সঙ্গীর বদমেজাজ কমে যাবে। তবে কিছু কৌশল রয়েছে, যা আপনাকে অবলম্বন করতে হবে। ভারতের জীবনধারা ও স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট বোল্ডস্কাই এমন কিছু উপায় বাতলেছে। চলুন, একবার চোখ বুলিয়ে নিই—

কারণ খুঁজে বের করুন

আপনার প্রথম ও সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজ হচ্ছে, হুট করে সঙ্গী কেন রাগল তার কারণ খুঁজে বের করা। নিশ্চয়ই এমন কোনও কারণ রয়েছে, যা আপনি বুঝতে পারছেন না। সঙ্গীর রেগে যাওয়ার কারণগুলোর দিকে নজর দিন। মনে রাখবেন, একে অন্যের মনমর্জি বুঝতে পারলে সম্পর্ক দৃঢ় হয়।

শান্ত থাকার চেষ্টা করুন

এই পদক্ষেপটি আপনাকে বেশ সাহায্য করবে। সঙ্গী যখন রেগে যাবে, সে সময় আপনাকে শান্ত থাকতে হবে, যাতে তার মানসিক স্থিতিশীলতা ফিরে আসে। আমরা বুঝতে পারছি, এমন সময় আসতে পারে, যখন আপনিও মেজাজ হারাতে পারেন। কিন্তু সে কারণে পরিস্থিতি আরও জটিল হবে। আগুনে ঘি ঢালবেন না। বরং সঙ্গীর মেজাজ শান্ত হতে সময় দিন। এতে হয়তো সঙ্গী নিজের ভুলটা অনুধাবন করতে পারবে।

ভুলের পুনরাবৃত্তি এড়ান

যদি আপনার এমন কোনও কাজ সঙ্গীকে উত্তেজিত করে তোলে, তবে বার বার সেটা না করাই ভালো। আপনার কোনও আচরণ হয়তো সঙ্গী পছন্দ করছে না, অথবা তাকে হতাশ করে তুলছে। ধরা যাক, সামান্য কিছু কাজ—এই যেমন বিছানার ওপর ভেজা তোয়ালে রাখা সঙ্গীর পছন্দ নয়; অথবা রুমে যখন কেউ নেই, তখন বাতি জ্বালিয়ে রাখাটা সঙ্গীর অপছন্দ। এ কাজগুলো যদি আপনি করে থাকেন, তবে আর না করাই উত্তম।

অতিরিক্ত ভাববেন না

রাগের মাথায় সঙ্গী কী বলল, সেটাকে অধিক গুরুত্ব না দেওয়াই ভালো। হয়তো কী বলেছে, সে সম্পর্কে নিজেই অবগত ছিল না। এ কারণে এ নিয়ে অতিরিক্ত ভাবার কিছু নেই। হুট করে এটা ভেবে বসবেন না যে সঙ্গী আপনাকে আর আগের মতো ভালোবাসে না বা আপনার সঙ্গে থাকতে চায় না। এত সব না ভেবে বরং সঙ্গীকে শান্ত করার চেষ্টা করুন।

কথা বলুন

সম্পর্কে যে কোনও সমস্যা সমাধানের সর্বোত্তম উপায় হলো খোলামেলা আলাপ করা। সমাধানে অসমর্থ হলেও আপনার উচিত প্রথমে কারণটা অনুসন্ধান করা। কার্যকর আলাপই পারে সঙ্গীর বদমেজাজি আচরণকে দূর করতে। আলাপে আপনি বলতে পারেন, এত ছোটখাটো বিষয় নিয়ে এতটা রাগ না করলেই চলত। সঙ্গী নিশ্চয়ই আপনার কথা মান্য করবে।

সঙ্গীকে সাহায্য করুন

ব্যাপারটা এমন নয় যে একবার বদমেজাজ নিয়ে আলোচনা করলেন আর তাতেই সঙ্গীর আচরণ বদলে যাবে। সঙ্গীর আচরণ বদলাতে তাকে সাহায্য করুন। সুন্দর ভাবে গুছিয়ে তাকে আপনার কথা বলুন। আপনার ভালো আচরণ ও সুন্দর ব্যবহার সঙ্গীকে বদলে দিতে পারে।

পরামর্শগুলো মেনে চললে তা বদমেজাজি সঙ্গীকে সামলাতে সাহায্য করবে। নিজে শান্ত থাকার চেষ্টা করুন। মনে রাখবেন, ভালোবাসা ও ধৈর্য দিয়ে আপনি তার আচরণ বদলাতে পারেন।

Related Posts

© 2024 Tech Informetix - WordPress Theme by WPEnjoy