বিপাকে ইমরান খান, গ্রেফতারের ‘প্রতিজ্ঞা’ করলেন পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

পাকিস্তানের ক্ষমতাচ্যুত প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে গ্রেফতার করতে প্রতিজ্ঞা করেছেন দেশটির বর্তমান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রানা সানাউল্লাহ। রোববার (১ মে) তিনি বলেছেন, মসজিদে নববীতে পাকিস্তানি প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ ও তার প্রতিনিধি দলের সঙ্গে যা হয়েছে, তার কোনো ক্ষমা নেই। খবর জিও নিউজের।

মসজিদে নববীর ঘটনাকে ‘ফিতনা’ বা ‘গৃহযুদ্ধ’র সঙ্গে তুলনা করে সানাউল্লাহ বলেন, তারা যা করেছে, তা কিছুতেই ক্ষমা করা হবে না। ইমরান খানকে অবশ্যই গ্রেফতার করা হবে।

ওই ঘটনায় ইমরানসহ ১৫০ জনের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া মামলা প্রসঙ্গে পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, রাসূল (স)-এর রওজার পবিত্রতা লঙ্ঘনকারীদের বিরুদ্ধে মামলা না করার কোনো যৌক্তিকতা নেই। তিনি বলেন, এ বিষয়ে যে কেউ এগিয়ে এসে ব্যবস্থা নিতে চাইলে সরকার বাধা সৃষ্টি করবে না।

সানাউল্লাহর ভাষ্যমতে, পবিত্র মসজিদটিতে পিএমএল-এন নেতাদের হয়রানির ঘটনা পূর্বপরিকল্পিত। এটি করতে মানুষজনকে উসকানি দেওয়া হয়েছিল। পাকিস্তানি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী মসজিদে নববীতে গুণ্ডামি করার জন্য আনিল মুসারাত ও সাহেবজাদা জাহাঙ্গীরের নেতৃত্বে একদল লোক যুক্তরাজ্য থেকে সৌদি আরবে পৌঁছায়।

এদিন ইমরান খানকে কটাক্ষ করে সানাউল্লাহ বলেন, এই লোকটি নতুন প্রজন্মকে বিভ্রান্ত করতে উদ্যত। আর কেউ কি কখনো চাঁদরাতে প্রতিবাদের ডাক দিয়েছে?

মসজিদে নববীর ঘটনার পেছনে ষড়যন্ত্রের কথা বলতে গিয়ে শাহবাজ সরকারের এ মন্ত্রী পাল্টা প্রশ্ন করেন, শেখ রাশেদের সংবাদ সম্মেলনের পর প্রমাণের কি আর দরকার রয়েছে?

পাকিস্তানি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, ওই ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সৌদি সরকার। তারা কিছু লোককে শিগগির পাকিস্তানে ফেরত পাঠাবে।

এর আগে, মদিনার পবিত্র মসজিদে নববীতে পাকিস্তানের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ও মন্ত্রীদের উদ্দেশ্য করে ‘চোর চোর’ স্লোগান ও হট্টগোলের ঘটনায় ইমরান খানসহ ১৫০ জনের নামে একটি মামলা দায়ের হয় পাকিস্তানে। তাদের বিরুদ্ধে পাকিস্তানি ওমরাহপালনকারীদের হয়রানি ও ধর্মীয় কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে। এ ঘটনায় এরই মধ্যে ইমরান-ঘনিষ্ঠ সাবেক এক মন্ত্রীর ভাতিজাকে গ্রেফতার করেছে পাকিস্তানের নিরাপত্তা বাহিনী।

Related Posts

© 2024 Tech Informetix - WordPress Theme by WPEnjoy