নিয়মিত হাঁটার যত উপকারিতা, জানলে চমকে যাবেন

নিজেকে শারীরিকভাবে ফিট রাখার জন্য হাঁটার কোনও বিকল্প নেই। পেশী, জয়েন্ট এবং হাড়কে শক্তিশালী করা থেকে শুরু করে বিপাক প্রক্রিয়া বাড়িয়ে তোলার ক্ষেত্রে হাঁটা বিশেষ অবদান রাখে। নিয়মিত হাঁটার অভ্যাস করলে শরীরের বাড়তি মেদ কমে যায় নিশ্চিতভাবে। হাঁটার যেসব স্বাস্থ্য উপকারিতা রয়েছে জেনে নিন সেগুলো—

হার্ট ভালো রাখে

হাঁটা হার্ট ভালো রাখতে সহায়তা করে এবং করোনারি হার্ট ডিজিজের ঝুঁকি হ্রাস করে। এর জন্য সপ্তাহে পাঁচ দিন অন্তত ৩০ মিনিটের জন্য হাঁটা উচিত।

ক্যালোরি পোড়ায়

ক্যালোরি বার্ন করার জন্য অনেকেই ভারী বা জটিল ওয়ার্কআউট করে থাকেন। কিন্তু আপনি কী জানেন, কেবল হাঁটার মাধ্যমে সহজেই ওজন হ্রাস করতে পারেন। তাই নিয়মিত হাাঁটার অভ্যাস শুরু করুন।

এনার্জি বাড়ায়

দিনের বেশিরভাগ সময় শুয়ে কাটালে স্ট্যামিনা কমে যায়। তাই সবসময় শুয়ে না থেকে ঘরের মধ্যেই হাঁটাহাঁটি করে করা যায় এমন কাজ করুন। হাঁটা অক্সিজেন প্রবাহ বৃদ্ধি করে, নোরপাইনফ্রাইন এবং এপিনেফ্রিনের মতো হরমোনের স্তরকে উন্নত করে।

রক্তে সুগার কমায়

খাওয়ার পরে কখনই শুয়ে থাকবেন না বরং হাঁটাচলা করুন। কারণ খাওয়ার পরের হাঁটা রক্তে শর্করা হ্রাস করতে এবং হজমে উন্নতি করতে সহায়তা করে। খাবার পরের হাঁটা দুর্দান্ত অনুশীলন হিসাবেও কাজ করে যা আপনাকে ফিট রাখতে সহায়তা করবে।

উদ্বেগ দূর করে

বিভিন্ন গবেষণায় দেখো গেছে যে, উদ্বেগ থেকে মুক্তি পাওয়ার ক্ষেত্রে ১০ মিনিটের হাঁটা ৪৫ মিনিটের ব্যায়ামের মতোই কাজ করে। এছাড়াও প্রকৃতির কাছাকাছি থাকা আপনার মনকে শান্ত করতে এবং চাপ কমিয়ে উদ্বেগের মাত্রা হ্রাস করতে সহায়তা করে।

Related Posts

© 2024 Tech Informetix - WordPress Theme by WPEnjoy